Logo
শিরোনাম
নির্মান প্রকৌশল শ্রমিক ইউনিয়নে টেলিভিশন প্রদান। আবারও সাবেক মেয়র মুক্তির জামিন ১৪ দফায় নামঞ্জুর মেয়রপ্রার্থী লিপুর পক্ষে ঘাটাইলে অটোরিকশা চালকদের শোডাউন। বানারীপাড়ায় অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিনের জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ। পরিষদের কাজে উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুমোদন নেবেন ইউএনও। ঘাটাইল রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে কাজী আরজু। সন্ধানপুর ইউনিয়নে নবজাতক শিশুদের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরন সাবেক এমপি মরহুম ডাঃ মতিউর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে ওবায়দুল হক নাসির।

টাঙ্গাইলের সাবেক মেয়র মুক্তিসহ ৪ জনের জামিন আবারও নামঞ্জুর

রাফসান সাইফ সন্ধিঃ টাঙ্গাইলে আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার আসামি সাবেক পৌর মেয়র সহিদুর রহমান খানসহ চার আসামির জামিন আবেদন আবার নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (৩১ মে) টাঙ্গাইলের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের দায়িত্বে থাকা দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ সাউদ হাসান এ আদেশ দেন।
আসামি সহিদুর রহমান টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সাবেক এমপি আমানুর রহমান খানের ভাই এবং একই আসনের বর্তমান এমপি আতাউর রহমানের পুত্র। জামিন নামঞ্জুর হওয়া অপর তিন আসামি হলেন আনিছুল ইসলাম ওরফে রাজা, মোহাম্মদ আলী ও মোহাম্মদ সমীর।
টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি মনিরুল ইসলাম খান বলেন, কারাগারে আটক থাকা ওই চার আসামির পক্ষে তাঁদের আইনজীবীরা সোমবার ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে আদালতে জামিন আবেদন করেন। তাঁরা যেকোনো শর্তে আসামিদের জামিন মঞ্জুরের দাবি জানান।
এ সময় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি মনিরুল ইসলাম খান এবং বাদীপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম জামিন আবেদনের বিরোধিতা করেন। পরে আদালত চারজনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।
টাঙ্গাইল পৌরসভার সাবেক মেয়র সহিদুর রহমান গত ২ ডিসেম্বর আত্মসমর্পণের পর আদালত তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
এই চার আসামির মধ্যে সহিদুর রহমান গত ২ ডিসেম্বর আত্মসমর্পণের পর আদালত তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আনিছুল ইসলাম ও মোহাম্মদ আলী গ্রেপ্তার হন ২০১৪ সালের আগস্টে। তাঁদের দুজনের আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তৎকালীন এমপি আমানুর রহমান খান এবং তাঁর তিন ভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার তৎকালীন মেয়র সহিদুর রহমান খান, ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান খান ও ছাত্রলীগের তৎকালীন কেন্দ্রীয় সহসভাপতি সানিয়াত খানের জড়িত থাকার বিষয়টি উঠে আসে।
মোহাম্মদ সমীরকে পুলিশ ২০১৫ সালে গ্রেপ্তার করে।
২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ তাঁর কলেজপাড়া এলাকার বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার তিন দিন পর তাঁর স্ত্রী নাহার আহমেদ বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন।
তদন্ত শেষে গোয়েন্দা পুলিশ এ মামলায় আমানুর, তাঁর তিন ভাইসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়। এ হত্যা মামলার এখন সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে।