Logo
শিরোনাম
নির্মান প্রকৌশল শ্রমিক ইউনিয়নে টেলিভিশন প্রদান। আবারও সাবেক মেয়র মুক্তির জামিন ১৪ দফায় নামঞ্জুর মেয়রপ্রার্থী লিপুর পক্ষে ঘাটাইলে অটোরিকশা চালকদের শোডাউন। বানারীপাড়ায় অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিনের জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ। পরিষদের কাজে উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুমোদন নেবেন ইউএনও। ঘাটাইল রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে কাজী আরজু। সন্ধানপুর ইউনিয়নে নবজাতক শিশুদের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরন সাবেক এমপি মরহুম ডাঃ মতিউর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে ওবায়দুল হক নাসির।

ত্রিশালে দেড় কোটি টাকার রাস্তা বছর না ঘুরতেই বেহাল দশা।

ইমরান হাসান বুলবুল, ত্রিশাল(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধিঃ

বর্ষাকাল আসার আগেই ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ত্রিশাল-পোড়াবাড়ী সড়কের আবারও বেহাল দশা।দেখার যেন কেউ নেই। অথচ বছর ঘুরতে না ঘুরতেই খানা-খন্দ সৃষ্টি হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছিল দেড় কোটি টাকা ব্যয়ের এই সড়কটি।



ত্রিশাল পোড়াবাড়ী সড়কের সাড়ে ছয় কিলোমিটার মেরামত কাজের জন্য ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জুন মাস পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছিল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিএম এন্টারপ্রাইজকে। নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করতে পারেনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিএম এন্টারপ্রাইজ।স্থানীয়রা জানায়, ত্রিশাল-পোড়াবাড়ী সড়কটির কাজ শেষ হওয়ার বছর না ঘুরতেই সড়কে তৈরি হয়েছিল অসংখ্য গর্ত। সড়কে চলাচলকারী মালবাহী যানবাহন নিয়মিতই আটকে যাচ্ছিল এসব খানা-খন্দে। ঘটেছিল দুর্ঘটনা, হতাহত হচ্ছিল সড়কে চলাচলকারী মানুষ। ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকতে হতো মালবাহী যানবাহন এবং পথচারীকে।

স্থানীয় ভুক্তভোগী শাহীন হোসাইন সাজ্জাদ বলেন, ত্রিশাল-পোড়াবাড়ী সড়কটি দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে মেরামত করা হলেও নিম্ন মানের কাজ হওয়ায় অল্প কিছু দিনের মধ্যেই খানা খন্দের সৃষ্টি হয়েছিল। তখন ইট, বালু ফেলে সাময়িক চলাচলের উপযোগী করা হলেও এখন আবারও বেশ কয়েকটি জায়গায় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দ্রুত মেরামত করা না হলে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা।

মঠবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল কদ্দুস মন্ডল বলেন, ত্রিশাল-পোড়াবাড়ী সড়কটি ত্রিশাল, ভালুকা, টাঙ্গাইলের সঙ্গে সংযোগ সড়ক। এ সড়ক দিয়ে তিন উপজেলার মানুষের যাতায়াত। নির্মাণের কিছু দিনের মধ্যেই সড়কে খানা-খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। যতই দিন যাচ্ছে এই সড়ক দিয়ে গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে।

ত্রিশাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ আমিন বলেন, রাস্তাটি এলজিইডি এর আওতাভুক্ত। তবে এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয়ের সাথে আমার কথা হয়েছে। উনি উপজেলা প্রকৌশলী সাহেবকে বিষয়টি অবগত করেছেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, উপজেলা প্রকৌশলীকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়ার পর তারা সড়ক পরিদর্শনে গিয়েছে এবং ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকেও এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান বলেন, খানা খন্দ সংস্কারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিএম এন্টারপ্রাইজকে চিঠি পাঠিয়েছিল। পরে এসব খানা-খন্দে ইট, বালু ফেলে কোনো রকম চলাচলের উপযোগী করা হয়েছিল। এখন আবার চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পরছে। যত দ্রুত সম্ভব রাস্তাটি মেরামত করা হবে। পরে এর স্থায়া সমাধানের জন্য ব্যবস্থা নেয়া হবে।