Logo
শিরোনাম
নির্মান প্রকৌশল শ্রমিক ইউনিয়নে টেলিভিশন প্রদান। আবারও সাবেক মেয়র মুক্তির জামিন ১৪ দফায় নামঞ্জুর মেয়রপ্রার্থী লিপুর পক্ষে ঘাটাইলে অটোরিকশা চালকদের শোডাউন। বানারীপাড়ায় অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিনের জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ। পরিষদের কাজে উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুমোদন নেবেন ইউএনও। ঘাটাইল রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে কাজী আরজু। সন্ধানপুর ইউনিয়নে নবজাতক শিশুদের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরন সাবেক এমপি মরহুম ডাঃ মতিউর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন রিপোর্টার্স ইউনিটির অফিস পরিদর্শনে ওবায়দুল হক নাসির।

ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজুর বিরুদ্ধে ডিস ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ।

ঘাটাইল প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে রুবেল মিয়া নামে এক ডিস ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজুর বিরুদ্ধে।
জানা যায়, গতকাল বুধবার সকালে উপজেলার আনেহলা ইউনিয়নের একাশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। রুবেলের পরিবারের অভিযোগ আরজু তার নিজ বাস ভবনে ডেকে নিয়ে ঘটনাটি ঘটান। আহত রুবেল মিয়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।



রুবেলের পরিবারের অভিযোগ সে একাশী গ্রামে দীর্ঘদিন যাবৎ ডিস ব্যবসা করে আসছেন। ঘটনার কয়েকদিন আগে ডিস ব্যবসায়ী রুবেলকে ৪০টি টিভি লাইন ছেড়ে দিতে বলেন কাজী আরজু। এতে রুবেল লাইন ছেড়ে দিতে অস্বীকার করেন। পরবর্তীতে বুধবার সকালে ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজু তার সন্ত্রাসী লোকজন দিয়ে রুবেলকে বাসায় ডেকে পাঠান। কাজী আরজুর বাসভবনের টর্চারসেল এ রুবেলকে নিয়ে যান এবং ডিস লাইন ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেন। এক পর্যায়ে রুবেল লাইন ছেড়ে দিতে অস্বীকার করলে ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজুর সন্ত্রাসী বাহিনী প্রথমে আঘাত করেন। আঘাতে রুবেল পরে গেলে কাজী আরজু রড দিয়ে বেদম পিটিয়ে আহত করেন।
পরবর্তীতে রুবেলের স্ত্রী লোকের মারফত খবর পেয়ে এলাকার লোকজন নিয়ে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।
আহত ডিস ব্যবসায়ী রুবেল বলেন, কাজী আরজু ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। মারপিটের এক পর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে যাই। একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে আমাকে এই ভাবে পিটিয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।
এ বিষয়ে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানতে চাওয়া হলে ঘাটাইল উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজু বলেন, আমি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজী নই। পরে আপনাকে জানাবো।
এ ব্যাপারে, ঘাটাইল উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক মোঃ শহিদুল ইসলাম লেবু বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে সাধারণ জনগণের উপর এভাবে মারধর করে আইন নিজের হাতে তুলে নিতে পারেন না। এতে করে উপজেলা পরিষদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আরজু এর আগেও এ রকম অনেক ঘটনা ঘটিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপকর্মেরঅভিযোগ রয়েছে। তিনি আওয়ামীলীগের কোনো সদস্য নন। এটি তার ব্যাক্তিগত ব্যাপার। তবে ঘটনাটি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তার বিচার হওয়া উচিত।
এ বিষয়ে ঘাটাইল থানা অফিসার ইনচার্জ মাকসুদুল আলম বলেন, আমি একটি মিটিং এ রয়েছি। বিষয়টি এখনও অবগত হইনিল।

তবে পরিবার থেকে মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান।